1. selimnews18@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস :
  2. selim.bmail24@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২) : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২)
  3. asadzobayr@yahoo.com : Zobayr : আসাদ জোবায়ের
রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০, ১০:১৬ অপরাহ্ন

করোনা সংকটে মন ভালো রাখতে যা করবেন….

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশের সময়: সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০

মাহবুব আহমদ: মন্দের ভালো বলতে একটা ব্যাপার আছে। আর করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য। কিন্তু কিভাবে?

দাড়ান বলছি, ঘাতক এই ভাইরাসটি একরাশ দুশ্চিন্তা নিয়ে আসলেও, সাথে নিয়ে এসেছে সময়ের প্রাচুর্য। হ্যা, চিন্তা করে দেখেন, এখন আপনার অনেক সময়। কিন্তু আপনি এই সময়ের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করছেন তো?

কিভাবে তা করা যায়, ভাবছেন তো? বলছি,

১. প্রত্যহিক জীবনের কর্মব্যাস্ততা আপনার পারিবারিক জীবনে দূরত্ব সৃষ্টি করেছে? এটাই শ্রেষ্ঠ সুযোগ। পারিবারিক আড্ডা-মতবিনিময় আর সকল কাজে পারস্পারিক সহযোগিতার মাধ্যমে পুনরায় সুদৃঢ় পারিবারিক বন্ধন গড়ে তুলুন। এই পরিস্থিতিতে ঝগড়া পরিহার করবেন। কর্মক্ষেত্রের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা পরিবারের সদস্যদের সাথে শেয়ার করতে পারেন, অন্যদের অভিজ্ঞতা-অনুভূতি-অনুযোগও শুনতে পারেন। আপনার সময় ভালো কাটবে আশা করা যায়।

২. শিক্ষা কখনোই কোনো প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি অথবা পরিস্থিতির মধ্যে সীমাবদ্ধ হয় না। এই সময়ে আপনি কুরআন শিক্ষা, নামাজ শিক্ষা, লার্নিং ইংলিশ অথবা আপনার প্রয়োজন ও পছন্দ অনুযায়ী যে কোনো বিষয়ে পড়াশোনা করতে পারেন।

যদি ভাবেন, কোথা থেকে- কিভাবে শিখবেন? তাহলে আপনাকে বলছি, প্রযুক্তি এখন অনেক এগিয়ে। প্রযুক্তির কল্যাণে সকলের হাতেই এখন একটি আধুনিক স্মার্টফোন আছে। আপনি গুগল প্লেস্টোরে সার্চ করলেই, বাংলা উচ্চারণ ও অনুবাদসহ কুরআন শিক্ষার বইয়ের পিডিএফ ফাইল পেয়ে যাবেন। অনুরূপ পূর্ণ নামাজ শিক্ষা ও লার্নিং ইংলিশ সক্রান্ত বিভিন্ন এপ্লিকেশনও পাবেন। সর্বোপরি আপনি যে বিষয়ে পড়াশোনা করতে চান, তার পিডিএফ ফাইল পাবেন। হাতের নাগালে অথবা আপনার সংগ্রহে বই থাকলে আরও ভালো, না থাকলে এই পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন।

৩. আপনি ব্যাস্ততম একজন, শারীরিক ব্যায়ামের জন্য সময় করে উঠতে পারেন না? আপনার ওজন একটু কম হলে-স্মার্ট লুক আসত, সেই সাথে শারীরিক সুস্থতাও নিশ্চিত হতো। ভাবছেন তো?

হ্যা, আপনি যথার্থই ভাবছেন। এই সুযোগে সেটা করতে পারেন। যদি ভাবেন, জিমে যাওয়া লাগবে, অথবা বিশেষ কোনো ইকুইপমেন্ট লাগবে, তাহলে বলবো আপনি খুব ভুল ভাবছেন।

মাহবুব আহমদ

এগুলো সহায়ক, আবশ্যক না। কিভাবে শুরু করবেন?
-এক্ষেত্রে আপনি আগের পদ্ধতিই অনুসরণ করুন। প্লে স্টোরে ছেলে ও মেয়েদের জন্য এ বিষয়ে আলাদা আলাদা অ্যাপস আছে। মানসম্মত একটা ডাউনলোড করে সেই অনুযায়ী নিয়মিত এক্সারসাইজ করেন। আপনি একাই পারবেন। ইন্সট্রাক্টর, ইকুইপমেন্ট বা জিমনেসিয়াম কিছুই লাগবে না।

৩. বিনোদন আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়! মানসিক স্বাস্থ্য ও সুস্থতার জন্য বিনোদনের প্রয়োজন আছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যারা একঘেয়ে জীবনযাপন করেন, সাধারণত খিটখিটে মেজাজের হন। মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত ও অসুস্থ হয়ে পড়েন। কিছু ক্ষেত্রে সেটা বুঝা গেলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা সুপ্ত থেকে যায়। তো মানসিক প্রশান্তি ও সুস্থতা লাভের জন্য আপনি কি করতে পারেন-

প্রথমত আপনি আপনার ছোটখাটো শখগুলো পূরন করতে পারেন। এতদিন যা সময়ের অভাবে করে উঠতে পারেন নি। এছাড়াও আপনি লেখালেখি, বই পড়া, পছন্দের মুভি এবং টিভি শো দেখতে পারেন। রান্না করতে পারেন অথবা রান্নার কাজে সাহায্য করতে পারেন। বাচ্চাদের নিয়ে ইনডোর গেইম খেলতে পারেন, বাগান করতে পারেন। আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুবান্ধবদের খোঁজখবর নিতে পারেন। সমসাময়িক সকল বিষয়ে সবার সাথে আলোচনা করতে পারেন।

অথবা আপনার বুদ্ধিদীপ্ত মতামত ও চিন্তাধারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রকাশ করতে পারেন।

সর্বোপরি, কঠিন এই সময়ে স্রষ্টার নিকবর্তী হতে পারেন। এছাড়াও এমন অনেক বিষয় আছে যা আপনি করতে চান, কিন্তু সময়ের অভাবে করতে পারেন না। এই সময়ে তা করতে পারেন। আশা করা যায় আপনার সময় ভালো কাটবে এবং আনন্দময় হবে।

বাসায় থাকুন, নিরাপদ থাকুন, আপনার মুহুর্তগূলো হোক আনন্দময়।

এ বিভাগের আরও খবর...

Comments are closed.

Shares