1. selimnews18@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস :
  2. selim.bmail24@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২) : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২)
  3. asadzobayr@yahoo.com : Zobayr : আসাদ জোবায়ের
পাঁচ সাহিত্যিক পেলেন জলকথা পাণ্ডুলিপি পুরস্কার
শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

পাঁচ সাহিত্যিক পেলেন জলকথা পাণ্ডুলিপি পুরস্কার

সাহিত্য ডেস্ক
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০

প্রকাশনী সংস্থা জলকথা প্রকাশ আয়োজিত জলকথা পাণ্ডুলিপি পুরস্কার ২০২১ পেলেন ৫ জন গুণি সাহিত্যিক। এরা হলেন সৃজনশীল সাহিত্যে তমসুর হোসেন, মননশীল সাহিত্যে ড. আশরাফ পিন্টু, কিশোর সাহিত্যে মনিরা মিতা, শিশুসাহিত্য পদ্যে মামুন সারওয়াও ও শিশুসাহিত্য গদ্যে শাম্মী তুলতুল।

এ বছরের ২০ আগস্ট পর্যন্ত জমা নেওয়া পাণ্ডুলিপি যাচাই-বাছাই করে সোমবার (২ নভেম্বর) জলকথা প্রকাশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। বিজয়ী পাণ্ডুলিপি নিজস্ব অর্থায়নে প্রকাশ করবে জলকথা প্রকাশ। এছাড়া চারটি বিভাগে মোট ৩৩টি পাণ্ডুলিপি বাছাই করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট লেখকের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে তা প্রকাশ করবে সংস্থাটি।

সৃজনশীল সাহিত্য বিভাগে বিজয়ী তমসুর হোসেন একজন চিকিৎসক। ১৯৫৭ সালে কুড়িগ্রামে জন্ম। বেড়ে ওঠা ও বর্তমান অবস্থান কুড়িগ্রামেই। চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি নিরলসভাবে লিখে চলেছেন কবিতা, ছোটগল্প, শিশুতোষ গল্প, প্রবন্ধও গান। এ পর্যন্ত তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ১৮টি।

মননশীল সাহিত্য বিভাগে বিজয়ী ড. আশরাফ পিন্টু একজন গবেষক ও গল্পকার। ১৯৬৯ সালের ২২ সেপ্টেম্বর মানিকগঞ্জ শহরের দাশোরা মহল্লায় (মাতুলালয়ে) জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পৈতৃক নিবাস পাবনা। পিতা মোয়াজ্জেম হোসেন ও মাতা আশরাফুন্নেসা। তিনি ১৯৮৬ সালে পাবনা জিলা স্কুল থেকে এস.এস.সি এবং ১৯৮৮ সালে সরকারি এডওয়ার্ড কলেজ (পাবনা) থেকে এইচ.এস.সি পাস করেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যথাক্রমে ১৯৯২ ও ১৯৯৪ সালে বাংলা সাহিত্যে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। এরপর তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০৭ সালে এম.ফিল এবং ২০১৩ সালে পি-এইচ.ডি ডিগ্রি অর্জন করেন। আশরাফ পিন্টু বর্তমানে শিক্ষকতা করছেন পাবনা এডওয়ার্ড কলেজে।

কিশোর সাহিত্য বিভাগে জয়ী মনিরা মিতা ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স এবং মাস্টার্স শেষ করে সাভার ল্যাবরোটরি কলেজে ৩ বছর শিক্ষকতা করেছেন। বর্তমানে তিনি জাহানাবাদ ইংলিশ স্কুল, জাহানাবাদ সেনানিবাস, খুলনায় শিক্ষিকা হিসাবে কর্মরত আছেন। তিনি মূলত গল্প, কবিতা ও শিশুতোষ গল্প লেখেন। তার প্রকাশিত বই দুটি।

শিশুসাহিত্য (পদ্য) বিভাগে বিজয়ী মামুন সারওয়ার মূলত ছড়াকার ও শিশুসাহিত্যিক। জন্ম ১৯৮২ সালে ভোলা জেলায়। বেড়ে ওঠা ভোলা ও যশোরে। যশোর সরকারি সিটি কলেজ থেকে থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্য নিয়ে পড়ালেখা শেষ করেন। তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৩০টি। লেখালেখির পাশাপাশি তিনি সম্পাদনা করছেন ‘ছেটাদের সময়’ ও ‘লাটাই’ নামে দুটি ম্যাগাজিন।

শিশুসাহিত্য (গদ্য) বিভাগে বিজয়ী শাম্মী তুলতুল তরুণ শিশুসাহিত্যিক ও ঔপন্যাসিক। লেখালেখি করছেন দীর্ঘ ১৩ বছর ধরে বাংলাদেশ ভারতের প্রথম সারির পত্রিকাগুলোতে। জন্ম ও বেড়া ওঠা চট্টগ্রামে। লেখালেখির হাতেখড়ি শিশু বয়সেই। লেখালেখির এবং শিশু সাহিত্যে পেয়েছেন অনেক পুরষ্কার। তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ১৪টি। বর্তমানে পড়াশোনা করছেন আইন বিভাগে।

সেরা ৫জন বিজয়ী ছাড়াও ৩৩টি পাণ্ডুলিপিকে সেরা হিসেবে বাছাই করেছে সংস্থাটি। সংশ্লিষ্ট লেখকের সঙ্গে আলোচনাসাপেক্ষে যা প্রকাশ করবে জলকথা

জলকথা প্রকাশের প্রকাশক সেলিম আহমেদ একাত্তর এক্সপ্রেসকে বলেন, সেরা কিছু বই প্রকাশের ইচ্ছা থেকেই আমরা এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি। তবে অসংখ্য ভালোমানের পাণ্ডুলিপি আমরা পেয়েছি। এর মধ্য থেকেই বিচারকরা চুড়ান্ত ফলাফল প্রস্তুত করেছেন। আমরা সবাইকে অভিনন্দন জানাই।

  •  
    915
    Shares
  • 915
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরও খবর...

Comments are closed.