1. selimnews18@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস :
  2. selim.bmail24@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২) : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২)
  3. rafiqulislambd320@yahoo.com : একাত্তর এক্সপ্রেস : একাত্তর এক্সপ্রেস
  4. asadzobayr@yahoo.com : Zobayr : আসাদ জোবায়ের
কমলগঞ্জে ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কমিটি নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ১১:৫৪ অপরাহ্ন

কমলগঞ্জে ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কমিটি নিয়ে উত্তেজনা বিরাজ

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশের সময়: রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি দুটি কমিটি গঠিত হয়েছে। দুটি কমিটিকেই উপজেলা ছাত্রলীগের দুটি পক্ষ অনুমোদন দিয়েছে। এ নিয়ে দেখা দিয়েছে উত্তেজনা। ছাত্রলীগ সূত্র জানায়,চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি হবিবুল ইসলাম ইমনকে সভাপতি ও শাকির হোসেন জয়কে সাধারন সম্পাদক করে ২৬ সদস্য বিশিষ্ট পতনঊষার ইউনিয়নের ছাত্রলীগ কমিটি অনুমোদন দেয় কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ। অনুমোদনের কয়েকদিনের মধ্যেই এই কমিটি থেকে মৌখিক ও সোস্যাল মিডিয়ায় পোষ্ট দিয়ে কয়েকজন নেতাকর্মী পদত্যাগ করেন। পদত্যাগের পরপরই কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক উপজেলা ছাত্রলীগের প্যাডে তিন সদস্য বিশিষ্ট পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আরো একটি কমিটি অনুমোদন দেন। ইউনিয়ন ছাত্রলীগের পাল্টাপাল্টি কমিটি অনুমোদন নিয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের একাধিক দ্বায়িত্বশীল নেতার সাথে আলাপকালে জানাযায়, কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের অনুমোদিত পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি সর্ম্পকে তারা কিছুই জানেন না। তারা মনে করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সকল নেতৃবৃন্দের সাথে সমন্বয়  করে কমিটি অনুমোদন দিলে এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হতো না। এছাড়াও সোস্যাল মিডিয়ায় সদ্য ঘোষিত পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের এ দুই গ্রুপের উত্তেজনামূল্যক লেখালেখি দেখে স্থানীয় নেতাকর্মীসহ সাধারন মানুষের ধারনা যেকোনো মুর্হুতে এ দুই গ্রুপের মধ্যে বড় ধরনের সংর্ঘষ ঘটতে পারে। এবিষয়ে নবগঠিত কমিটির দ্বায়িত্বশীল পদ থেকে নেতৃবৃন্দের পদত্যাগ  করার বিষয়ে জানতে চাইলে পতঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের একাংশের সভাপতি হবিবুল ইসলাম ইমন বলেন, সহ-সভাপতি ও যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক কোনো কমিটি অনুমোদন দিতে পারেন বলে আমার জানা নাই। এছাড়াও আমি জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দকে জানিয়েছি আশা করছি শীগ্রই এবিষয়ে উনারা একটা ব্যবস্থা নিবেন। তার সর্ম্পকে অপরাংশের করা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, পদবঞ্চিত হয়ে তারা আমার বিরেুদ্বে উদ্দেশ্যমূল্যক বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ করে আসছে যা সর্ম্পূন মিথ্যা ও বানোয়াট। এ বিষয়ে আলাপের জন্য এ কমিটির সাধারন সম্পাদক শাকির হোসেন জয়ের মোটোফোনে একাধিকবার ফোন দিলে মোটোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এবিষয়ে আলাপকালে ইউনিয়ন ছালীগের সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি পদে আসিন হওয়া জুনেদ খান বলেন, আমরা পারিবারিক ভাবে আওযামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত এছাড়াও আমি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের পূর্বের কমিটিতে আইন বিষয়ক সম্পাদক ছিলাম। তিনি বলেন, চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি ঘোষিত ইউনিয়ন ছালীগের কমিটির সভাপতি হবিবুল ইসলাম ইমনকে ইভটিজিংয়ের একাধিক অভিযোগের দায়ে পতনঊষার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার  করা হয়েছিলো। এছাড়াও শাকির হোসেন জয় একজন অছাত্র, তার বিরুদ্বে রয়েছে একাধিক অপরাধমূল্যক মামলা, তাকে করা হয়েছে সাধারন সম্পাদক। এ প্রসঙ্গে পদত্যাগ  করা ও সদ্য ঘোষিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগের একাংশের সাধারন সম্পাদক রিন্টু দাশ অপর অংশের কমিটির বিরুদ্বে অভিযোগ করে বলেন, একাধিক অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তি ও বিএনপি-জামায়াত পরিবারের সদস্যরা অর্থের বিনিময়ে অবৈধভাবে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটিতে অনুপ্রবেশ করেছে যা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র পরিপন্থী বলে আমি মনে করি। সদ্য অনুমোদন দেওয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটির প্রসঙ্গে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগে যুগ্ন সাধারন মনসুর খান বলেন, দীর্ঘদিন যাবত পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছি। প্রতিটি ওয়ার্ড কমিটির মাধ্যমে সংগঠনকে সুসংগঠিত করতে কাজ করেছি। মেয়াদ উত্তির্ন হওয়ায় উপজেলা ছাত্রলীগ ইউনিয়ন কমিটি গঠন করতে চাইলে আমরা সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্বের হাতে দায়িত্ব হস্তান্তরের দাবী জানাই কিন্তু তারা তা না করে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দদের না জানিয়েই বিতর্কিত ব্যক্তিদের দিয়ে পতনঊষার ইউনিয়ন কমিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেন। এইরকম বিতর্কিতদের হাত থেকে সংগঠনকে রক্ষার করতে ও পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। । পতনঊষার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হবিবুল ইসলাম ইমন ও সম্পাদক শাকির হোসেন জয়ের বিরুদ্বে উঠা অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সাকের আলী সজিব বলেন, এখন পর্যন্ত এ ধরনের কোন অভিযোগ পাইনি। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সহ-সভাপতি ও যুগ্ম -সাধারন সম্পাদকেরা কোনো কমিটি অনুমোদন দিতে পারেন না। তাই তাদের অনুমোদিত কমিটির কোনো বৈধতা নেই।
  •  
    85
    Shares
  • 85
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
এ বিভাগের আরও খবর...

Comments are closed.