1. selimnews18@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস :
  2. selim.bmail24@gmail.com : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২) : একাত্তর এক্সপ্রেস (টিম ২)
  3. rafiqulislambd320@yahoo.com : একাত্তর এক্সপ্রেস : একাত্তর এক্সপ্রেস
  4. asadzobayr@yahoo.com : Zobayr : আসাদ জোবায়ের
করোনার দ্বিতীয় ধাপঃসরকারি আদেশ অমান্য করে চলছে কমলগঞ্জে কোচিং বাণিজ্য
শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ১২:৩১ পূর্বাহ্ন

করোনার দ্বিতীয় ধাপঃসরকারি আদেশ অমান্য করে চলছে কমলগঞ্জে কোচিং বাণিজ্য

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি: দেশে মহামারি করোনাভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়ায় গত বছরের মার্চ মাসে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ কোচিং সেন্টার অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে সরকার। তবে সাম্প্রতিক সময়ে করোনার প্রকোপ কিছুটা কমলেও সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার পরিকল্পনা করে। কিন্তু এরই মধ্যে করোনার প্রকোপ আবারো বাড়তে শুরু করায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে ।

তবে এমন পরিস্থিতিতেও মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে থেমে নেই কোচিং সেন্টার ও প্রাইভেট প্রোগ্রাম। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,সরকারি নির্দেশ উপেক্ষা করে উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্র কোনো প্রকার সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই নতুন কৌশলে কোচিং বাণিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন।

এতে উপজেলায় করোনা সংক্রমণের মারাত্মক ঝুঁকির আশঙ্কা তৈরি হচ্ছে বলে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,কমলগঞ্জ উপজেলায় নামে বেনামে বিভিন্ন এলাকার অলিগলিতে ও বাসা বাড়িতেসহ উপজেলা সদরের কমলগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে প্রকাশ্যে চালাছেন ডিজিটাল নলেজ কোচিং সেন্টার।

এবিষয়ে আলাপকালে ডিজিটাল নলেজ কোচিং সেন্টারের মালিক জাকারিয়া আহমেদ বলেন,স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের কাজ থেকে মৌখিক অনুমতি নিয়েই কমলগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে নলেজ কোচিং সেন্টার চালাছেন।

এদিকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোচিং সেন্টার চালু থাকায় সচেতন মহলে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। চিকিৎসকরা মনে করছেন,এভাবে কোচিং সেন্টার চললে করোনায় আক্রান্তের ঝুঁকি রয়েছে এসব শিক্ষার্থীদের। করোনার ঝুঁকি নিয়ে কোচিং সেন্টারে আসা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। অভিভাবকদের দায়িত্বে অবহেলা ও খামখেয়ালীপনা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে সচেতনমহলে। প্রশাসনের এমন উদাসীনতা দেখে উপজেলার সচেতন মানুষের মধ্যে প্রচ-ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ থানা ওসি ইয়ারদৌস আহমেদ বলেন,এ বিষয়টি কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে আলাপকরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আশেকুল হক বলেন,দ্রুত এসব কোচিং সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মৌখিক অনুমতির কথা অস্বীকার করে কমলগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শামসুর নাহার বলেন,বিষয়টি আমার জানা ছিলো না। বিষয়টি এখন জেনেছি আমরা দ্রুত এসব কোচিং সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

এ বিভাগের আরও খবর...

Comments are closed.